•   Wednesday, 12 Jun, 2024
IEB JABBAR

তথ্যপ্রযুক্তি কাঠামোকে শক্তিশালী ও সুদৃঢ় করতে 'আইসিটি ক্যাডার' ও 'টেলিকম ক্যাডার' চালু জরুরি

Generic placeholder image
  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকৌশল সমাচার প্রতিবেদক: ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ডিজিটাল কানেক্টিভিটি না থাকলে স্মার্ট বংলাদেশ বিনির্মাণ করা যাবে না। মানব সম্পদে অনেক এগিয়ে বাংলাদেশ।  এদেশের মানুষের মেধা শক্তিকে সুযোগ তৈরি করে দিতে পারলে অনেক এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ। তথ্যপ্রযুক্তি কাঠামোকে শক্তিশালী ও সুদৃঢ় করতে "আইসিটি ক্যাডার" ও "টেলিকম ক্যাডার" চালু করা দরকার। ডাটা প্রাইভেসিকে সুরক্ষিত করতে সুদক্ষ মানব সম্পদ প্রয়োজন। 

গতকাল রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি)'র কম্পিউটার কৌশল বিভাগের উদ্যোগে "ডিজিটাল রুপান্তর: চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে আইসিটি ও সিএসই'র ভূমিকা" শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এই সব কথা বলেন।  

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশে মাইক্রোসফট, আমাজন, গুগল গড়ে উঠে নাই বলেই দেশের মেধাবীরা বাইরের দেশে গিয়ে সেইসব প্রতিষ্ঠান গুলোতে জব করছে। এদেশে আন্তর্জাতিক মানের প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার জন্য বিনিয়োগকারীদের এগিয়ে আসতে হবে। দেশীয় উদ্যোক্তারা আরও বেশি উৎসাহী হয়ে এগিয়ে আসলে লাল ফিতার ফাইলের দৌরাত্ম আরও কমে যাবে। 


সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আইইবি'র প্রেসিডেন্ট ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জি. মোঃ আব্দুস সবুর।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জনাব আবদুস সবুর  বলেন, সরকার আইসিটি ও সিএসই সেক্টরে উন্নয়নে সঠিক পথেই আছে৷ দেশের তরুন সমাজ আইসিটিতে বিশ্বের পরিবর্তনের সাথে ভাল ভাবেই অভিযোজন করতে পেরেছে। আইসিটিতে স্থায়ী ও শক্তিশালী উন্নয়নের জন্য যে ভিশনারি নেতৃত্ব প্রয়োজন তা আমাদের আছে আর তিনি হলেন দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য উত্তরাধিকারি সজীব ওয়াজেদ জয়৷ 

আইইবির প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার মো. আবদুস সবুর আরও বলেন, বাংলাদেশে তথ্যপ্রযুক্তির যে সমৃদ্ধি হয়েছে তার জন্য সরকারের ধারাবাহিকতা অন্যতম কারন। ফলে আগামী নির্বাচনে দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকারের ধারাবাহিকতা অত্যন্ত জরুরি এবং অপরিহার্য। 

আইইবির সম্মানী সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী এস. এম. মনজুরুল হক মঞ্জু স্বাগত বক্তব্যে বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে আইইসিটি সেক্টরে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছেন। সেই উন্নয়নের অন্যতম কারিগর হল দেশের প্রকৌশলীরা৷ আগামীতে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রকৌশলীদের মূল্যায়ন করতে হবে। আইসিটি ক্যাডার অন্তর্ভুক্ত করলে দেশের সেরা আইসিটি প্রকৌশলীরা বিদেশে যাবে না বরং দেশেই ক্যারিয়ারের সেরা জায়গা খুঁজে নিবে। 

সেমিনারের আরো বক্তব্য রাখেন আইইবি'র ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মো. নূরুজ্জামান, প্রকৌশলী খন্দকার মনজুর মোর্শেদ এবং বুয়েটের কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মাহমুদা নাজনীন। 

আইইবির কম্পিউটার কৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান ও বঙ্গবন্ধু ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি (বিডিইউ)'র ভিসি অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী মুহাম্মদ মাহফুজুল ইসলামের সভাপতিত্বে সঞ্চালনা করেন সম্পাদক প্রকৌশলী তানভীর মাহমুদুল হাসান এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন কম্পিউটার কৌশল বিভাগের ভাইস চেয়ারম্যান সঞ্জয় কুমার নাথ। 

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আহছানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. শামীম আখতার। 

সেমিনারে সম্মানিত আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক পরিচালক অধ্যাপক ড. এ. কে. এম. মুজাহিদুল ইসলাম। 

সেমিনারে আরও উপস্থিত ছিলেন আইইবির সহকারী সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জি. অমিত কুমার চক্রবর্তী,  ইঞ্জি. শেখ তাজুল ইসলাম তুহিন এবং  ইঞ্জি. আবু তালেব দোলনসহ আইইবির কেন্দ্র, উপকেন্দ্র, বিভাগের নেতৃবৃন্দ।

IEB
Comment As:

Comment (0)